Sunday, June 20, 2010

হ্যাকারের হাত থেকে নিজের পাসওয়ার্ড রক্ষা কার্যকরী সমাধান

আমি মাসপি, নিচের পোস্টটিই ছিল আমার জীবনে ব্লগে লেখা প্রথম পোস্ট। টেকটিউন্সে লিখেছিলাম। এই পোস্টটির সাহায্যে আপনি আপনার বিভিন্ন আইডির পাসওয়ার্ড কিভাবে নিরাপদে সংরক্ষন করতে পারবেন, তা জানবেন। ক্ষতিকর স্পাইওয়্যার বা কীলগার থেকে বাঁচার কার্যকরী সমাধান।

সবার আগে হ্যাকারের কীলগার, স্পাইওয়ার থেকে নিজের পাসওয়ার্ড রক্ষা করার উপায় বলি। এটা একবারে সোজা নিয়ম, একটু মনযোগ দিলেই বুঝতে পারবেন, কত সোজা কাজ !!! আজ যদি অযথা এটাকে কঠিন বলে এড়িয়ে যান তাহলে পাসওয়ার্ড হ্যাক হলে আপনার ক্ষতি হবে।

কেও যদি আপানার পিসিতে কীলগার বা স্পাইওয়ার জাতীয় কোন প্রোগ্রাম ঢুকিয়ে রাখে তাহলে আপনার মেইল ঠিকানা , ফেসবুকসহ বিভিন্ন গুরুত্মপূর্ণ পাসওয়ার্ড হ্যাক হয়ে যেতে পারে। কারণ আপনি কী- বোর্ড এ যা টাইপ করেছেন তা হ্যাকারের কাছে ইমেইলের মাধ্যমে চলে যেতে পারে। তাই আজ আমি এমন এক পদ্ধতি শিখাব যার মাধ্যমে আপনি অটো username এবং পাসওয়ার্ড দিতে পারবেন। ফলে আপনাকে কীবোর্ড এ কোন টাইপ করতে হচ্ছে না।

এই লিঙ্ক হতে autohotkey সফটওয়্যার টা ডাউনলোড করে নিন এবং ইন্সটল করুন।
ধরুন আপনার জিমেইল Username হল - rawnak-ali-khan   আর পাসওয়ার্ড ধরেন - bangladesh
এবার নোটপ্যাড অপেন করে নিচের লাইনটি কপি করে নোটপ্যাড এ পেস্ট করুন।
#z::
Send rawnak-ali-{tab}bangla
return

এগুলা লিখে নোটপ্যাড এ rawnak.ahk নামে save করেন।

এবার স্টার্ট মেন্যু থেকে Autohotkey সাবফোল্ডারে গিয়ে Convert .ahk to.exe তে ক্লিক দেন। source এ rawnak.ahk এর লোকেশন দিন এবং destination এ rawnak.exe কোথায় সেভ হবে তা দেন। এবার Convert এ ক্লিক দেন। তাহলে আপনার  rawnak.exe ফাইলটা তৈরী হয়ে গেল।
আপনারা একটা জিনিস খেয়াল করছেন ? যে আপনার পাসওয়ার্ড হল -bangladesh অথচ আমি নোটপ্যাড এ শুধু bangla লিখলাম। আর Username হল - rawnak-ali-khan এর বদলে শুধু rawnak-ali- লেখলাম। এটাই ট্রিক্স । এ পদ্ধতি অনুসরন করলে আপনার তৈরীকৃত ফাইল যদি কারো হাতে পড়ে , তাহলে ও সমস্যা নেই। এ পদ্ধতিতে আপনার হ্যাক হওয়ার সম্ভবনা কম।
এবার ইচ্ছে হলে autohotkey নামের সফট আন ইন্সটল করতে পারেন। এখন আর এই জিনিসের দরকার নাই। এই জিনিস  .ahk এর ফাইলকে .exe তে রূপান্তরিত করে।
 rawnak.exe তে ডাবল ক্লিক দেন।



এখন rawnak.exe তে ডাবল ক্লিক দিলে system tray তে H নামের একটা আইকন আসবে।
 তারপর mail.gmail.com এ ঢুকেন। userneme এর জায়গায়  মাউস দিয়ে একটা ক্লিক করেন।
windows key+z ক্লিক করেন। দেখবেন username এর ঘরে আপনার নাম rawnak-ali- এবং  পাসওয়ার্ড bangla নিজে নিজে বসে গেসে।

এবার username এর ঘরে বাকী khan লেখাটা আপনি নিজে কীবোর্ড দিয়ে লিখে দেন। তারপর আপনি কী বোর্ড দিয়ে আপনার পাসওয়ার্ড এর ঘরে  Desh লিখে দিবেন।
এরপর sign in করে আপনার মেইল বক্স এ প্রবেশ করুন।
(এর মধ্যে একটা কথা বলি, অনেকে আছে windows key কোনটা চিনে না। তাদের জন্য বলছি, আপনার কীবোর্ড এর বামদিকে "Ctrl " এবং "alt" এর মাঝে যে নদীর ঢেও এর মত একটা কী আছে ঐটা হল windows key )
এ পদ্ধতি ব্যাবহার করার ফলে আপনার কীবোর্ড খুব একটা প্রেস করতে হচ্ছে না। ফলে হ্যাকার কীলগার লাগালেও আপনার পাসওয়ার্ড পাবে না।
আপনি যদি আরো পাসওয়ার্ডকে আরো নিরাপত্তা দিয়ে চান তাহলে এ ব্যাপারটাকে আরও জটিল করে ফেলতে পারেন। যেমন নোট প্যাড এ rawnak-ali-khan না লিখে আরও কম কিছু লিখলেন বা বেশি কিছু লিখলেন। then backspace দিয়ে কেটে দিতে পারেন।


আরও জটিল করতে চাইলে , bangladesh না লিখে bnlds লিখে নোট প্যাড এ save করতে পারেন। পরে কী বোর্ড দিয়ে মাঝখানের অক্ষর গুলো বসিয়ে দিতে পারেন।
তবে আমি অনেক অনেক জটিল করে পাসওয়ার্ড বসাই। কারণ মাঝে মাঝে নিজের পিসিকেও বিশ্বাস করতে পারি না, বলাতো যায় না হ্যাকার সাহেব কখন আমার পিসিকে নিজের বলে ধরে নিয়েছে।
সাইবার ক্যাফে যাওয়ার সময় বা বন্ধু পিসিতে মেইল চেক করার সময় আপনি পেনড্রাইভে করে এই rawnak.exe ফাইলটা নিয়ে যেতে পারেন।
আমি আমার এই rawnak.exe ফাইলটা  মিডিয়াফায়ারে আপলোড করে রাখি। বন্ধুর বাসায় গেলে দরকার হলে ডাউনলোড করে কাজ করি। সবসময় পেনড্রাইভ হাতে রাখা যায় না। আর rawnak.exe ফাইলের আইকন পরিবর্তন করে রাখি। যাতে হ্যাকার সাহেব আমার ফাইল ডাউনলোড করে ডাবল ক্লিক করার সময় ভাবে, "নিজেই হ্যাক হয়ে যাচ্ছি না তো "।
গুরুত্মপূর্ণ কথা- বন্ধুর পিসিতে কাজ শেষ করার পর system tray তে rawnak.exe এ মাউসের right বাটন এ প্রেস করে Exit এ ক্লিক দিতে হবে। 


না হলে আপনি যাবার পর বন্ধু আপনার পাসওয়ার্ড নিয়ে গবেষণা শুরু করে দিতে পারে।

No comments:

Post a Comment

এখানে আপনি আপনার মূল্যবান মতামতটি প্রকাশ করতে পারেন।